বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপের এডমিন পোষ্ট কেমন হওয়া উচিত 😆😆😌😆😆

আমি আপনাদের জন্য বিভিন্ন গ্রুপের আসল চরিত্রটা তুলে ধরলাম। এটা তাদের আসল রূপ। যদি বিশ্বাস না হয়, প্রমাণ নিয়মের পরে দেয়া থাকবে দেখে নিবেন। 


নিয়ম

👉আমাদের নিয়ম কানুন শুধু ছেলেদের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। কারণ তাদের কাছে পাওয়ার মত উল্লেখযোগ্য কিছু নেই।
👉আমরা এ্যডমিন এবং মডারেটর প্যানেলের যে কেউ গ্রুপের সকল নিয়মের উর্ধে। কারণ ক্ষমতা (গ্রুপের) তো আমাদেরই হাতে। আর এটা তো প্রসিদ্ধ কথা "জোর যার মুল্লুক তার"।
👉যে কোনো মেয়ের পোস্টের সার্বক্ষণিক অটো এ্যাপ্রুভ থাকবে। হোক না তা নিয়মের বাহিরে। কারণ তাতে অনেকসময় কিছু.... মিলতে পারে।
👉পরিচিত ফ্রেন্ডদের পোস্ট কোনোভাবেই ঝুলিয়ে রাখা হবে না। কারণ তাতে বন্ধুত্ব নষ্ট হওয়ার আশংকা রয়েছে।
👉অপরিচিতদের লেখা ভালো হয়েও যদি এডমিন বা মোডারেটরদের মন মত না হয় তা এ্যাপ্রুভ হবে না। কারণ আপনার পোস্ট ডিলেড করলে কমেন্টবক্সে কাকুতি-মিনতি করা ছাড়া আপনার কিছু করার ক্ষমতা নেই।
👉আর হ্যাঁ নিরীহ সদস্যদের চমকপ্রদ কিছু পোস্ট ডিলেড করে দিয়ে এ্যডমিন এবং মডারেটর প্যানেলের যে কেউ তা কপি করে পোস্ট করলে কোনোরূপ অভিযোগ করা যাবে না। কারণ নিরীহ বলে তো একটা ব্যাপার আছে না? যদি ওই একটা পোস্টেই তিনি মার্কেট পেয়ে যান। তাহলে এটা তো লজ্জার কথা।

#প্রমাণ
👉গত ০৬/১২/১৮ইং ১২.২৯ এ এম মিনিটে এডমিন কর্তৃক কৃত একটা পোস্টে যাদের পোস্ট এ্যাপ্রুভ না হওয়ার অভিযোগ সবচেয়ে বেশি, তাদের শতকরা ৯৭% ছেলে।
👉ইদানীংকালে যেসব পোস্ট টাইমলাইনে বেশি স্থান পায় তার অধিকাংশই মেয়েদের।
👉এটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ তা হলো, একটা মেয়ের নামের আইডি দিয়ে পোস্ট করে দেখুন তা সাথে সাথেই এপ্রুভ পাবে, ঠিক একই পোস্ট ছেলের আইডি থেকে করবেন তাহলে মুফতেই ডিলেড পেয়ে যাবেন😆😆😆
এই ছিলো আজকের আয়োজন। পরবর্তী শোকগাথার জন্য আমন্ত্রণ রইল।
ইতি আপনাদের মত দু:খিত একটি মন নাছরুল হক।

#বি.#দ্র. একটা কথা স্মরণ রাখবেন বহু তিক্ততার পরে এ কথাগুলো আমি লিখেছি। এটা আমার একক মত। আপনি আমার মত গ্রহণ নাও করতে পারেন। তার পূর্ণ অধিকার আপনার আছে। আল্লাহ হাফেয।
লিখনে  Nasrul Haqe


পোষ্টটি ভাল লাগলে অবশ্যই শেয়ার করবেন,
এবং কমেন্ট করতে ভুলবেন না

Post a Comment

0 Comments